নখের জন্য করণীয় 

হাতের সৌন্দর্য্য কিন্তু অনেকটাই নির্ভর করে সুন্দর শেইপ করা ঝকঝকে মসৃন নখের ওপর,তবে অনেক মেয়ে আছেন, যারা নখ নিয়ে নানান সমস্যায় ভুগেন, যেমন ভঙ্গুর নখ,  নখে হলদে ভাব, ফাঙ্গাল ইনফেকশন, ইত্যাদি নখ পাতলা হবার কারণে দ্রুত ভেঙে যায়, এতে করে বড় করেও তেমন লাভ হয় না। নখ সহজে ভেঙে গেলে বুঝতে হবে আপনার  শরীরে ভিটামিন ও মিনারেলের অভাব আছেযারা দীর্ঘদিন ওজন কমানোর জন্য ডায়েট করে থাকেন তাদের শরীরে ভিটামিনের অভাব দেখা দেয়, ফলে বেশ সহজেই নখ ভেঙে যায়, নখে ইনফেকশন হয় আর হলদেটে দাগ পরে। এই ঝামেলা থেকে মুক্ত হওয়ার কিছু উপায় দেয়া হলো-  

    

নখের হলুদ ভাব দূর করতে-  

খুব বেশি দিন হাতে পায়ের নখে নেইল পালিশ লাগানো থাকলে হলদে ভাব চলে আসতে পারে,আবার নখের ফাঙ্গাল  ইনফেকশন  এর  কারণেও এমনটা হতে পারে এছাড়াও রান্না করার সময় হাতে হলুদ লাগলেও নখ হলুদ রঙের হতে পারে, এবং তা যা সহজে যায় না,এই সমস্যা সমাধানের জন্য একটা লেবুকে অর্ধেক করে নিয়ে নখে ঘষুন, নখের হলুদ ভাব চলে যাবে.এছাড়া ভিটামিন ই ক্যাপসুল ভেঙে নখে লাগাতে পারেন,এতে রক্ত সঞ্চালন ভাল হয় ফলে নখে দাগ থাকবে না আর হলদে ভাবও চলে যাবে,এছাড়াও নিয়মিত আলুর রসব্যবহার এই সমস্যা থেকে মুক্তি দেবে।  

  

ফাঙ্গাল ইনফেকশন-নখে ফাঙ্গাল ইনফেকশন বেশ কিছু কারণে হতে পারেমূলত ধুলো ময়লার কারনেই নখে ফাঙ্গাল ইনফেকশন হয়ে থাকে, এছাড়া নখের ভেতর দীর্ঘ সময় ময়লা জমে থাকলেও নানানা  রকম ফাঙ্গাল ইনফেকশন হতে পারে.এই সমস্যা সমাধানে প্রথমেই নখ ভালো মতো পরিষ্কার রাখাটা জরুরী,নখে যদি ইনফেকশন হয়ে থাকে তবে নেল পলিশ লাগাবেন না।কারন এতে সমস্যা আরও বাড়বে । আর অবশ্যই ডাক্তারের পরামর্শ মতো অ্যান্টি ফাঙ্গাল ওষুধ ও ভিটামিন খেতে হবে। 

কিছু টিপস  

১। নখ পরিষ্কার করতে সাবান ব্যবহার করুন। আবহাওয়া একটু ঠান্ডা হলে কুসুম গরম পানি ব্যবহার করুন সাবানের সঙ্গে। 

২। নখ ভেজা রাখা ঠিক নয়। এর ফলে বিভিন্ন জীবাণু, বিশেষ করে ছত্রাকের সংক্রমণ হতে পারে।  

৩। নখ খুব বেশি লম্বা করা ঠিক নয়, এতে আকস্মিক দুর্ঘটনায় নখ ভেঙে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তবে নখের আকার যা-ই হোক, পরিষ্কার রাখতে হবে সব সময়। 

৪ নখে যেকোনো অস্বাভাবিকতা দেখা দিলে (যেমন নখ বসে গেলে বা গর্ত হয়ে গেলে কিংবা হঠাৎ নখ ভঙ্গুর হয়ে গেলে, নখ বা এর চারপাশ ফুলে গেলে, পুঁজ জমলে বা ক্ষত সৃষ্টি হলে) দ্রুত চিকিৎসকের পরামর্শ নিন। 

  

নখের পুষ্টি 

নখের সুস্থতায় প্রয়োজন প্রোটিন, ক্যালসিয়াম, আয়রন, জিঙ্ক, ফলিক অ্যাসিড, বায়োটিন, ভিটামিন বি-১২ সহ অন্যান্য উপাদান কোনোটির অভাবে নখ বাদামি বা ধূসর হয়ে পড়ে, কোনোটির অভাবে নখে সাদা দাগ পড়তে থাকে, আবার কোনোটির অভাবে নখ ভঙ্গুর হয়ে পড়ে বা নষ্ট হতে থাকে। 

১। প্রতিদিন দুধ বা দুধের তৈরি খাবার রাখুন খাদ্যতালিকায়। রোজ রাতে দুধ খাওয়ার অভ্যাস করতে পারেন। 

২। মাছ, মাংস, ডাল, ডিম ও বাদাম খেতে হবে। ঘুরিয়ে-ফিরিয়ে এ খাবারগুলো অবশ্যই খেতে হবে। 

৩। শাকসবজি ও ফলমূল বাদ দেওয়া যাবে না। কমলা, আমলকীসহ অন্যান্য টক ফল নখের জন্য উপকারী। 

৪। সব সময় ভাল ব্র্যান্ডের নেল পলিশ ও রিমুভার ব্যবহার করবেন 

৫। নেল পলিশ রিমুভার ঘন ঘন ব্যবহার করবেন না । এতে কিউটিকলস শুকিয়ে যায় । 

  

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।