ভ্যালেন্টাইন ডে’তে হালকা সাজই পছন্দ


লিয়া নাজ

ইদানীং অলিগলিতেই অনেক মেকআপ আর্টিস্ট আছে বলে শোনা যায়। কিন্তু তাদের মধ্যে ক’জনইবা পারে নিজেকে একজন সফল মেকআপ আর্টিস্ট হিসেবে সবার সামনে উপস্থাপন করতে? পারে, ঠিকই পারে। কথায় আছে, ‘যে রাঁধে সে চুলও বাঁধে।’ এই কথাটির উৎকৃষ্ট উদাহরণ মেকআপ আর্টিস্ট লিয়া নাজ। খুব ছোটকাল থেকেই মেকআপ সামগ্রী নিয়ে খেলাধুলা করতে পছন্দ করতেন। আজকে সেই খেলাই তার পেশা হয়ে দাঁড়িয়েছে। লিয়া নাজের মেকআপ আর্টিস্ট হয়ে ওঠার গল্পটাই আজ তুলে ধরল আনন্দধারা...

আনন্দধারা : মেকআপ আর্টিস্ট হওয়ার ইচ্ছাটা কবে থেকে হলো?

লিয়া নাজ : আমি ছোট থেকেই মেকআপ পছন্দ করি। অনেক আগে থেকেই মেকআপ নিয়ে কাজ করি। দুই বছর আগে আমি মেকআপ নিয়ে ব্লগিং করতে শুরু করি। ব্লগিং করার মাধ্যমে আমার বন্ধুরা, বন্ধুর বন্ধুরা। আত্মীয়-স্বজন ও তাদের বন্ধুরা আমার মেকআপ সম্পর্কে জানে ও আমার কাছে মেকওভার করার জন্য আসতে থাকে। কোনো বিয়ে-শাদির অনুষ্ঠানে যাওয়ার আগে আমার বন্ধু ও আত্মীয়-স্বজন আমার কাছে একটা আবদার নিয়েই আসে যে, ‘আমাকে একটু মেকআপ করে দাও।’ তখন থেকেই আমার মেকআপ নিয়ে পথচলা শুরু। এখন আমি মেকআপ ছাড়া আর কিছুই বুঝি না।

আনন্দধারা : মেকআপ সম্পর্কিত কোনো কোর্স বা ডিগ্রি করা হয়েছে?

লিয়া নাজ : বন্ধুদের সাজানো শুরু করার পর থেকে অনেক কাস্টমার পেতে শুরু করি। তার আগে আমার এক বন্ধু বলল, তুমি এত ভালো মেকআপ কর, তোমার তো উচিত মেকআপের ওপর একটা কোর্স করা। কোর্স করলে তোমার দক্ষতা আরো বাড়বে। ওই সময় ইংল্যান্ড থেকে একজন মেকআপ আর্টিস্ট এসেছিলেন, তার নাম সেলিনা মনির। আমি তখন বন্ধুর পরামর্শ অনুযায়ী তার আন্ডারে কোর্সটা করে নিলাম। এরপর আমি থাইল্যান্ডে যাই। সেখানে এসএমএ বলে একটা মেকআপ একাডেমি আছে। সেখানে আমি আরেকটি কোর্স করি মেকআপের ওপর। তারপর দেশে ফিরে কিছু সময় পর আমি আফরোজা ম্যামের আন্ডারে ‘উজ্জ্বলা’তে আরেকটি কোর্স করেছি। মেকআপ নিয়ে এখন পর্যন্ত আমি এতটুকু জেনেছি। আরো অনেক জানার আছে।

আনন্দধারা : হেয়ার কাটিং ও হেয়ার কালার নিয়ে কাজ করেছেন?

লিয়া নাজ : হেয়ার কাটিং নিয়ে এখনো কাজ করা হয়নি। তবে সামনে করা হবে আশা করছি। আর হেয়ার কালার নিয়ে কাজ করে যাচ্ছি অনেকদিন হয়েছে। আমি থাইল্যান্ড থেকে হেয়ার কালারের ওপর কোর্স করে এসেছি। এখন আমার কাছে প্রচুর কাস্টমার আসে হেয়ার কালার করার জন্য।

আনন্দধারা : সংসার আর কাজ একসঙ্গে সামলানো যায় কি?

লিয়া নাজ : সংসার আর কাজ নিয়ে আমার কখনোই কোনো সমস্যা হয়নি। আমার স্বামী ও আমার শাশুড়ি দুজনই আমাকে আমার কাজের ক্ষেত্রে অনেক সাপোর্ট করেন। কখনো কখনো এমন হয় যে, কোনো দাওয়াত আছে শ্বশুরবাড়ির কিন্তু সেদিন আমার অনেক কাজের চাপ আছে। এমতাবস্থায় আমার শাশুড়ি আমাকে অনেক সাপোর্ট করেন। উনি নিজেই সব ম্যানেজ করেন। আমি এদিক থেকে অনেক বেশি ভাগ্যবতী।

আনন্দধারা : কবে থেকে কাজ শুরু করেছেন পুরোদমে?

লিয়া নাজ : আমি পুরোদমে কাজ শুরু করেছি এক বছর হলো। আগে অনলাইনেই ব্লগিং করতাম। এখন নিজের স্টুডিওতে কাজ করি। আমার স্টুডিওর নাম Lia’s Beauty Box ‘লিয়া’স বিউটি বক্স’। এক বছর ধরে আমি এখানেই পুরোদমে কাজ করে যাচ্ছি।

আনন্দধারা : লিয়া’স বিউটি বক্স-এর বয়স কত, সামনে কী প্ল্যান আছে?

লিয়া নাজ : লিয়া’স বিউটি বক্সের বয়স মূলত তিন বছর। আমি প্রথমে ফেসবুকে পেজ খুলে লিয়া’স বিউটি বক্সের কাজ চালিয়েছি। এখন এক বছর ধরে মেকওভার স্টুডিওতে কাজ করি, পাশাপাশি অনলাইনেও অর্ডার নিই। সামনে আমার মেকআপ স্টুডিওকে অনেক বড় করার প্ল্যান আছে।

আনন্দধারা : কাস্টমারদের রেসপন্স কেমন?

লিয়া নাজ : আমার ক্লায়েন্টদের জন্যই আমি আছি। আমার ক্লায়েন্টদের জন্য আমি সব ধরনের সুবিধা রাখি। সকালে যারা আসে তাদের জন্য নাশতার ব্যবস্থা করি। তারা যেমনটা চায় মেকআপ বা হেয়ার কালার আমি ঠিক তেমনটাই দেয়ার চেষ্টা করি। আমার মূল লক্ষ্য হলো আমার কোনো ক্লায়েন্ট যেন আমার স্টুডিও থেকে মন খারাপ করে না যায়। আমার ক্লায়েন্টদের সঙ্গে আমি সবসময় বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক বজায় রাখি।

আনন্দধারা : শীতকালে ত্বকের যত্ন নিয়ে মেকআপ করার কোনো উপদেশ আছে কি?

লিয়া নাজ : যেহেতু এখন শীতকাল, সেহেতু অনেক ভালো করে ময়েশ্চারাইজার দিয়ে মুখে মেকআপ ব্যবহার করতে হবে। তা নাহলে মুখ ড্রাই হয়ে যাবে। পাউডার দেয়ার ক্ষেত্রেও খেয়াল রাখতে হবে যেন খুব বেশি না হয়।

আনন্দধারা : ভ্যালেন্টাইন ডে’তে মেকআপ কেমন হওয়া উচিত?

লিয়া নাজ : ভ্যালেন্টাইন ডে’তে আজকাল খুব হালকা মানের ন্যাচারাল সাজ নিতেই সবাই পছন্দ করে। আপনি যত ন্যাচারাল লুকে থাকবেন, আপনাকে ততই সুন্দর লাগবে। চোখের ওপর হালকা স্মোকি শেডে আর ঠোঁটে লাল লিপস্টিক, ব্যাস।

ভ্যালেন্টাইন ডে’তে লিয়া’স বিউটি বক্সে বিশেষ ছাড় দেয়া হচ্ছে। যেকোনো কাজে ২০ শতাংশ ছাড় দেয়া হচ্ছে।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।