টেলিভিশন : বিবিসির মাস্টারমাইন্ড ফ্যামিলি দুরন্ত টিভিতে

 

দুরন্ত টিভি প্রতি সপ্তাহে রবি থেকে বৃহস্পতিবার রাত ৮টায় প্রচারিত হচ্ছে ‘মাস্টারমাইন্ড ফ্যামিলি বাংলাদেশ’। ১৯৭২ সালে প্রথমবারের মতো যুক্তরাজ্যে মাস্টারমাইন্ড কুইজ প্রতিযোগিতা শুরু করে বিবিসি। এরপর পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে এটি ছড়িয়ে পড়ে। এবার দুরন্ত টিভির কল্যাণে বাংলাদেশে এর আগমন ঘটে। এক কথায় বলা যায় দেশের প্রথম আন্তর্জাতিক কুইজ প্রতিযোগিতা।

দেশের আটটি বিভাগের কয়েক হাজার পরিবারের মধ্য থেকে ৬৪টি পরিবার বাছাই করা হয় প্রাথমিকভাবে। যারা মূল পর্বে অংশগ্রহণ করে। প্রতিটি পরিবারের সদস্য সংখ্যা ৫। প্রতি পর্বে দুটি পরিবার একে অন্যের সঙ্গে প্রতিযোগিতা করে বিজয়ী পরিবার পরবর্তী রাউন্ডে যায়। এভাবে রাউন্ড বাই রাউন্ড খেলার শেষে একজন পরিবার মূল বিজয়ী হবে।

এ প্রতিযোগিতায় মূলত লেখাপড়া, উপস্থিত বুদ্ধির ওপর বেশি জোর দেয়া হয়েছে। দেশ, সংস্কৃতি ও বিজ্ঞান থেকে বেশি প্রশ্ন করা হয়। পরিবারের ছোটদের সঙ্গে বয়োজ্যেষ্ঠদের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ নতুন এক মাত্রা দিয়েছে। প্রত্যেক সদস্যের অংশগ্রহণে জমে ওঠে প্রতিযোগিতা।

নবনীতা চৌধুরীর উপস্থাপনা চোখে পড়ার মতো। এর আগে রাজনৈতিক ব্যক্তিদের নিয়ে টকশোর উপস্থাপনা করেছেন। তবে বেশ ভালোভাবে মানিয়ে নিয়েছেন শিশুদের এই কুইজভিত্তিক অনুষ্ঠানের সঙ্গে।

শিশুদের নিয়ে এই অনুষ্ঠান হলেও এটা সব বয়সের মানুষই দেখতে পারেন। ছোটবেলার সাধারণ জ্ঞানভিত্তিক প্রশ্নকে অনুসরণের সঙ্গে সঙ্গে নতুন নতুন প্রশ্নের উত্তরও পাবেন।

 

৩০০ সেকেন্ডের’ ১০০ পার

শাহরিয়ার নাজিম জয়ের উপস্থাপনায় ৩০০ অনুষ্ঠানটি প্রচারিত হয় চ্যানেল আইতে। অনুষ্ঠানটির মূল পরিকল্পনা করেন মূলত চ্যানেল আইয়ের কর্ণধার ফরিদুর রেজা সাগর। বিভিন্ন অঙ্গনের তারকাদের ইন্টারভিউ নেয়া হয় মাত্র ৩০০ সেকেন্ডের মধ্যে। এত অল্প সময়ে ইন্টারভিউ নেয়ার অনুষ্ঠান দেশের টেলিভিশনে এই প্রথম। অনেকটা মারমার কাটকাট টাইপের প্রশ্ন-উত্তর হয়ে থাকে। ইতোমধ্যে ১০০ পর্বের বেশি প্রচারিত হয়েছে। অল্প সময়ের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তাও পেয়েছে অনুষ্ঠানটি।

অভিনেতা থেকে উপস্থাপক বনে যাওয়া শাহরিয়ার নাজিম জয় উপস্থাপক হিসেবে আলোচনায় এসেছেন আগেই। প্রশ্নের মারপ্যাঁচে তারকাদের নাজেহাল করে তুমুল সমালোচিতও হয়েছে। কিন্তু ‘৩০০ সেকেন্ডে’ সেই ধারা থেকে কিছুটা সরে এসে পরিমিতিবোধ বজায় রাখছেন, যা অনুষ্ঠানকে আরো বেশি গ্রহণযোগ্যতা দিয়েছে। তবে জয়ের ব্যক্তিগত আক্রমণ কিন্তু থেমে নেই। তারকাদের ব্যক্তিগত জীবনের প্রশ্ন করে বিব্রত করেই চলেছেন। যেটা দেখে মনে হয়েছে তথ্য জানার চেয়ে বিতর্ক সৃষ্টি করার ইচ্ছাটাই বেশি।

 

-রোমান শুভ

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।