রূপচাঁদা স্বাস্থ্য ফিচার : হৃদয় সামলে চলুন

জীবন সঙ্গীর ডাকে সাড়া দেয় হৃদয়। আর তাই সঙ্গীকে নিয়ে ভালোভাবে জীবন কাটাতে হৃদয়ের নিতে হয় বাড়তি যত্ন। দেখা যাচ্ছে আজকাল অল্প বয়সেই হার্টের সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এর কারণ হিসেবে আমাদের নিয়মবহির্ভূত লাইফস্টাইলকেই প্রধানত দায়ী করা হয়। আবার জেনেটিকভাবেও হার্টের অসুখ দেখা দিতে পারে। সে সমস্যাটি সবচেয়ে বেশি দেখা যায় সেটি হলো করোনারি-আর্টারি ডিজিজ। আর্টারির ইনার ওয়ালে প্লাক জমে যাওয়ার ফলে ধমনিগুলো সরু হয়ে যায় ও রক্ত সঞ্চালনে বাধাপ্রাপ্ত হয়। প্রাথমিক লক্ষণ হলো অ্যাজাইনা বা বুকে চাপ ধরে থাকা ব্যথা। এর সঙ্গে অস্বস্তিবোধ।

হার্টের অসুখ যে উল্টোপাল্টা লাইফস্টাইলের জন্যও হতে পারে, এটা বুঝতে অনেক সময় দেরি হয়। তাই অতিরিক্ত স্ট্রেস, টেনশন, রাতজাগা, অনিয়মিত খাওয়া-দাওয়া, এক্সারসাইজের অভাব ইত্যাদি সব মিলিয়ে প্রভাব ফেলে আপনার হার্টে। আবার অন্য অনেক ধরনের অসুখের চাপে ধীরে ধীরে বেড়ে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে করোনারি-আর্টারির সমস্যা। নিয়মমাফিক লাইফ স্টাইল এজন্য জরুরি।

কম বয়সে হার্ট অ্যাটাক হলে অনেকেই অভিযোগ করেন। সেভাবে কোনো আগাম লক্ষণও অনেক সময় টের পাওয়া যায় না। সতর্ক থাকা প্রয়োজন। যদি কারো ডায়াবেটিস থাকে, তাহলে হার্টের নার্ভগুলো অনুভূতিহীন হয়ে পড়ে। ডায়াবেটিসের ফলে নার্ভ ড্যামেজ হতে পারে। তাই বুকে ব্যথা অনেক সময় টের পাওয়া যায় না। তবে ডায়াবেটিস ছাড়া অনেকে আছেন, যারা হার্ট অ্যাটাকের লক্ষণ আগে থেকে বুঝতে পারেন না। এক্ষেত্রে সমস্যা মনে হলেই ডাক্তারের শরণাপন্ন হন।

হার্টের অসুখ প্রতিরোধে নিয়মিত এক্সারসাইজ করা প্রয়োজন। সপ্তাহে তিন-চারদিন রোজ ৩০-৪০ মিনিট ধরে এক্সারসাইজ করুন। হার্ট ভালো রাখতে হেলদি লাইফস্টাইল মেনে চলা খুব প্রয়োজন। তেলের ব্যবহার সম্পর্কে সচেতন হতে হবে। স্ট্রেস কমাতে হবে। প্রয়োজনে যোগাসন বা মেডিটেশনের সাহায্য নিন। ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখুন। ওজন বাড়লে ডায়াবেটিস কোলেস্টেরলের সমস্যা দেখা দেয়। ধূমপান, অ্যালকোহল বন্ধ করুন। খাবারের মেন্যুতে সবজি, সালাদ, ফল বেশি রাখুন। সুস্থ থাকুন। জীবনকে সুন্দরভাবে উপভোগ করুন।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।