ব্যালান্স ডায়েটে হেলদি লাইফ

ডায়েট শুধু মেয়েদের জন্য নয়। ছেলেরাও নিজেদের ফিট রাখার জন্য ডায়েট করেন। আর ব্যালান্সড ডায়েট আপনাকে রাখবে ফিট, এনার্জিময়। তবে তা হতে হবে সঠিক যেকোনো ডায়েট চার্ট ছেলেদের জন্য প্রযোজ্য নয়। মেয়েদের থেকে আলাদা হয় ছেলেদের ডায়েট। ব্যালান্স ডায়েট আপনার শরীরের চাহিদা অনুযায়ী তৈরি করা হয়। সারাদিনে পাঁচবেলা খাবার খেতে হবে। ফল, সবজি, সঙ্গে হেলিগ্রেন খাবার মাছ, ডিম, শিম ইত্যাদি। রেড মিট আর চর্বিযুক্ত খাবার। মিষ্টি জাতীয় খাবার বাদ দিতে হবে। তবে ব্যালান্স ডায়েট নির্দেশ করে দিতে কোন খাবার কতটা পরিমাণ খেতে হবে।

একজন ছেলের প্রতিদিন প্রয়োজন

এনার্জি (kcl)             ২৫০০

প্রোটিন (g) ৫৫

কার্বোহাইড্রেটস (g)   ৩০০

চিনি (g)    ১২০

ফ্যাট (g)  ৯৫

স্যাচুরেটস (g)           ৩০

লবণ (g)   ৬

নিজেকে সবার কাছে আকর্ষণীয় আর ফিট রাখতে কে না চায়। ফিটনেস বডিতে শুধু এক্সারসাইজ করলেই হবে না, সঙ্গে প্রয়োজন ব্যালান্স ডায়েট। ব্যালান্স ডায়েটের কিছু পরামর্শ দেয়া হলো-

সকালের নাশতা : সকালবেলা সবার বেশ ব্যস্ততার মধ্যে কাটে। তবে সকালের নাশতা বাদ দেয়া উচিত নয়। বরং সকালের খাবারটা একটু সময় নিয়ে খান। খাবারে ডিম রাখুন প্রতিদিন। কারণ ডিম প্রোটিন আর ফ্যাট ব্যালান্স করে। দুটো রুটি ও এক বাটি সবজি। সবজিতে ছোট ছোট চিকেন টুকরো থাকতে পারে। সঙ্গে মিষ্টি জাতীয় কোনো খাবার থাকতে পারে। একটু ভারী নাশতা আপনাকে অনেকক্ষণ এনার্জি দেবে।

নাশতার পাট চুকিয়ে মধ্য সকালে খেতে পারেন পিনাট বাটার সঙ্গে কলা বা টোস্ট অথবা অ্যাভোকাডোর সঙ্গে এক স্লাইস চিকেন। ফলের রস খেতে পারেন।

দুপুরের খাবারে প্রোটিন-কার্বোহাইড্রেট মিশিয়ে খেয়ে নিন। মাছ, মাংস, অল্প ভাত, এক কাপ ডাল, সবজি ও বাটি ভরা সালাদ। কাজে থাকলে চিকেন স্যান্ডউইচ, সঙ্গে এক বাটি সালাদ খেয়ে নিতে পারেন সহজেই।

বিকেলের নাশতা একেবারেই হালকা বাদাম, টোস্ট, পপকর্ন ইত্যাদি খেতে পারেন।

রাতের খাবারে প্রোটিনের পরিমাণ বেশি রাখুন। সঙ্গে পাতলা রুটি, সবজি ও সালাদ।

কখনোই না খেয়ে থাকা উচিত নয়। তাতে শরীরে ক্ষতি বৈ লাভ হয় না। এক্ষেত্রে খাবার খাওয়ার টাইমটেবিল ঠিক রাখা প্রয়োজন। সারাদিনে পানি খেতে হবে প্রচুর। ফল বা ফলের রস খেতে পারেন পরিমাণমতো। যারা এক্সারসাইজ করেন নিয়মিত, তাদের খাবারের মেন্যুতে প্রোটিনের পরিমাণ বেশি রাখা প্রয়োজন। দুধ-ডিম নিয়মিত খাওয়ার অভ্যাস গড়ে তুলুন। ফিট আকর্ষণীয় বডির সঙ্গে এনার্জি আর চকচকে ত্বকের অধিকারী হবেন। নিজের প্রতি আত্মবিশ্বাস বাড়বে। কাজে আনন্দ পাবেন, এনার্জি থাকবে। ক্লান্তি কম হবে। ব্যালান্সড ডায়েটের সঙ্গে সঙ্গে পর্যাপ্ত ঘুম প্রয়োজন।

 সোজা কথা জীবনে প্রতিটি দিনের রুটিন মেনে চলুন। সুস্থ থাকুন। সুঠাম আকর্ষণীয় দৈহিক সৌন্দর্যের অধিকারী হন।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।

Home popup