স্বাস্থ্য ফিচার : আদার ঔষধি গুণ

মাথা ব্যথা, মাথা ঘোরা, হঠাৎ শরীর ক্লান্ত লাগা- এ ধরনের সমস্যাগুলো আমাদের যে কারো যেকোনো সময় দেখা দেয়। আর এ অবস্থায় ওষুধের দ্বারস্থ না হলে যদি এক কাপ আদা চা খাওয়া যায়, তবে এ সমস্যাগুলো থেকে ওষুধ ছাড়াও আরাম পাবেন। আর এখন গরমে সর্দি, কাশি, জ্বর লেগেই থাকছে। এর জন্যও আদার রস উপকারী। গলা ব্যথা বা খুশখুশে কাশির ক্ষেত্রে আদা কুচি আপনাকে আরাম দেবে নিমিষে। সুপ্রাচীনকাল থেকেই আদার ব্যবহার ছিল অনেকটা প্রাকৃতিক ওষুধের মতোই। মাথা ঘোরা, সাইনাস, মাইগ্রেনের ব্যথা, বমি বমি ভাব এমন খাবারে রুচি ফিরিয়ে আনতেও আদা কুচি বা আদার রসের তুলনা নেই। সর্দি, কাশি বুকে বসে যেতে থাকলে আদা কুচি করে পানি দিয়ে ফুটিয়ে সেই পানি চায়ের মতো পান করুন নিয়মিত। দেখবেন আস্তে আস্তে বুকের কফ পাতলা হয়ে আসবে।

শীতকালে যাদের শ্বাসকষ্টের সমস্যা থাকে তা আরো বেড়ে যায়। অনেকের এমন অবস্থা হয় যে, ঘরেই অক্সিজেনের ব্যবস্থা রাখতে হয়। আর এ সময়টাতে আপনাকে আরাম দেবে আদা। আদার রয়েছে শ্বাসকষ্টের বিরুদ্ধে লড়াই করার বাড়তি শক্তি। এছাড়া বুকে কফ জমে অতিরিক্ত ঠাণ্ডা লেগে শ্বাস-প্রশ্বাসের সমস্যা হলেও আদা দারুণ কাজ করে।

আদার মধ্যে রয়েছে বেশকিছু গুরুত্বপূর্ণ ভিটামিন যেমন- ভিটামিন ‘বি’, ভিটামিন ‘সি’, ভিটামিন ‘ই’, মিনারেলস, ক্যালসিয়াম পটাশিয়াম, সোডিয়াম ও জিঙ্ক। আদায় মজুদ ভিটামিন, মিনারেলস ও অ্যামিনো অ্যাসিড শরীরে রক্ত চলাচল বাড়ায় এবং হৃৎপি-কে কর্মক্ষম রাখে। আদা ধমনী থেকে অতিরিক্ত চর্বি সরিয়ে হার্ট অ্যাটাক ও স্ট্রোকের ঝুঁকিও কমিয়ে দিতে পারে। রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক রাখতে সাহায্য করে। রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতেও জুড়ি নেই আদার।

বিভিন্ন রোগের প্রতিষেধক হিসেবেও কাজ করে আদা। পেটের যন্ত্রণা, গ্যাসট্রিক, কোলন ক্যান্সার, অতিরিক্ত ঘামজনিত সমস্যা, ডায়াবেটিস, কিডনির সমস্যা, জন্ডিস ইত্যাদি অসুখের নিয়ন্ত্রণে আদার গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রয়েছে। কাঁচা আদা লিভারের শক্তি বৃদ্ধিতে অতিরিক্ত ওজন কমাতে সাহায্য করে। রোগের ভেষজ প্রতিষেধক ছাড়াও আরো নানা ক্ষেত্রে আদার ব্যবহার করা হয়ে থাকে। আদার মধ্যে থাকা অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট শরীরে জমে থাকা টক্সিন বের করে দেয়। ফলে মুখে বয়সের ছাপ পড়ে না। ত্বকের নানা সমস্যা যেমন- শ্বেতী, ব্রণ, শুষ্কভাব, পোড়া দাগ, দূর করতে পারেন আদা খেয়ে। শুধু ত্বক নয়, চুলের সৌন্দর্যের ক্ষেত্রে আদা সাহায্য করে। চুল বৃদ্ধিতে, খুশকি কমাতে, চুল পড়া রোধে আদার ঔষধি গুণ ঈর্ষণীয়। আদার গুণাগুণ বলে শেষ হওয়ার নয়। প্রতিদিন আদা চা, আদার রস বা আদা কুচি খাওয়ার অভ্যাস করুন।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।

Home popup