জিরোক্যাল ফিটনেস :  নিজেকে ফিট রাখুন

নিপুণের বন্ধুদের আড্ডায় নানা রকম খাবার আয়োজন। আর মিষ্টির মেন্যুতে আছে দারুণ আকর্ষণ। কিন্তু মিষ্টি খাবারে এত পছন্দ হলেও, এখন নিজেকে সুস্থ আর ফিট রাখার জন্য মিষ্টি জাতীয় খাবার খাওয়া থেকে বিরত থাকতে হয়। তবে এই বন্ধুর বাড়িতে সবাই জানে ওর সমস্যার কথা। তাই তো বন্ধুর বউ জিরোক্যাল দিয়ে আলাদাভাবে নিপুণের জন্য তৈরি করে রেখেছে মিষ্টি খাবার। আর বাধা নেই জিরোক্যালে মিষ্টি বা মিষ্টি জাতীয় যেকোনো খাবার খেয়েও থাকা যাবে ফিট এবং সুস্থ।

দুধ চা এত পছন্দ মৌয়ের, প্রতিদিন বিকেলে এক কাপ না খেলেই নয়। কিন্তু অল্প বয়সে ডায়াবেটিস হয়ে দুধ চা খাওয়া বাদ দিতে হয়েছে। কারণ চিনি ছাড়া চা উফ্ সম্ভব নয়। কিন্তু আজ অনেক দিন পর বিকেলে বারান্দায় চায়ে চুমুক দিচ্ছে মৌ। আহ্ কী শান্তি। জিরোক্যাল দুধ চা, খেতে বাধা নেই।

এ রকমভাবে জিরোক্যালে স্বাস্থ্যসম্মতভাবে নিজের শখের মিষ্টি খাবারগুলো তৈরি করে খাবেন। এতে আপনার অসুস্থতার কোনো ক্ষতি হবে না। বরং শখও মিটবে, সঙ্গে ফিটনেসও থাকবে। সকালে ঘুম থেকে উঠে এক গ্লাস হালকা গরম পানি পান করুন। সঙ্গে দিতে পারেন অল্প লেবুর রস। অনেকে মধু ব্যবহার করেন এতে। আপনি চাইলে অল্প জিরোক্যাল মেশাতে পারেন।

ফলের জুস থেকে শুরু করে পায়েস কাস্টার্ড এমনকি আইসক্রিম তৈরি করে নিন জিরোক্যাল দিয়ে।

খাবার খেতে আপনি ভালোবাসেন তবে ফিগার নিয়ে চিন্তায় ভুগছেন। এ ক্ষেত্রে খাবার-দাবার ছেড়ে দেয়ার কোনো প্রয়োজন নেই। সহজ কিছু টিপস দেয়া হলো-

 সকালের নাশতায় ফ্রেঞ্চ টোস্ট খেতে চাইলে সাদা ব্রেডের জায়গায় ব্রাউন বা মাল্টি গ্রেন ব্রেড, ডিমের সাদা অংশ ও ফ্যাট ফ্রি দুধ দিয়ে বানান। ভাজার সময় সামান্য তেল ব্রাশ করে ননস্টিক প্যানে ভাজবেন।

* রুটিতে মাখন বা স্প্রেড লাগাতে চাইলে মেদ বেড়ে যাওয়ার ব্যাপারটাও মাথায় রাখতে হবে। তাই বাড়িতে টক দই থাকলে কাপড়ে পেঁচিয়ে রাখুন। পানি চলে গেলে রসুনের রস মিশিয়ে চিলি ফ্লেক্স দিয়ে মিশিয়ে রুটি বা ব্রেডে লাগিয়ে খান।

* সালাদে ড্রেসিং এবং স্ট্যুয়ে মাখন না দিয়ে লেবুর রস ছড়িয়ে দিন। স্বাদে তৃপ্তি পাবেন।

* স্যুপ শরীরের জন্য উপকারী, তবে স্যুপে বাটার, চিজ বা ক্রিম ব্যবহার করা যাবে না। বরং সবজির পিউরি মিশিয়ে ঘন করুন।

* মাংস খাবেন চর্বি ছাড়া, মসলা ছাড়া সালাদের সঙ্গে।

* এমন খাবার যাতে মাংসকুচি ব্যবহার হয়, তাতে মাশরুম দিন। মাংসের পরিবর্তে মাশরুম ব্যবহারে স্বাদে তেমন হেরফের হবে না। তবে ক্যালোরিতে পড়বে।

* রান্নায় ঘি-মাখনের পরিবর্তে অলিভ অয়েল ব্যবহার বৃদ্ধি করুন।

* ডেজার্টে চিনির বদলে জিরোক্যাল ব্যবহার করুন।

* পিজা বানালে টমেটো সস না দিয়ে পিউরি দিন। অনেক ক্যালোরি বাঁচবে।

* আলুর চিপস না খেয়ে পপকর্ন খান। তবে বাটার নয়, প্লেন।

* ডি ফ্রাই করার চেয়ে প্যানে সতে না বেক করে খাবার খান।

এভাবে খাদ্যরসিকরা খাবার খেতেও পারবেন ইচ্ছে অনুযায়ী আবার ফিগারও মেইনটেইন হবে ভালোভাবে।

যদি ব্রেকফাস্টে পুষ্টিকর খাবার খাওয়া যায় তাহলে সারাদিন ভালোভাবে কাটাতে পারেন তবে তা সঠিকভাবে আপনার জন্য পুষ্টিকর হতে হবে। সঠিক ব্রেকফাস্ট পুষ্টির ঘাটতি দূর করে ও এনার্জির মাত্রা বাড়িয়ে দেয়। হোলগ্রেন, লো ফ্যাট প্রোটিন দুগ্ধজাত দ্রব্য আর ফল এ ধরনের খাবারগুলো ব্রেকফাস্টে রাখার চেষ্টা করুন। অপশন বেশি তাই একেক দিন একেকটা বেছে নিন।

* সবজির রস আর হোল হুইট ব্রেডের স্যান্ডউইচ।

* মুগডালের চাপটি বা সেদ্ধ রুটি সঙ্গে এক বাটি সবজি, কলা বা ফলের রস।

* এক বাটি ফল আর দুধ কর্নফ্লেক্স।

* পরোটা আর দই। সঙ্গে ফ্রুট সালাদ।

* যারা হালকা খাবেন, তারা এক গ্লাস ফল বা সবজির জুসের সঙ্গে ৫-৬টি আলমন্ড অথবা ১টি ডিম খেতে পারেন।

অফিসে যাওয়ার পথে গাড়িতে ব্রেকফাস্ট সারতে হলে সালাদ, স্যান্ডউইচ, কলা বা যে কোনো ফল খেতে পারেন। সঙ্গে লো ফ্যাট স্কিমড মিল্ক এক গ্লাস। ব্রেকফাস্ট তেলে ভাজা বা মসলাদার খাবার এড়িয়ে চলা ভালো।

সারাদিনে ৫-৬টি ছোট ছোট মিল খান, এতে ক্লান্তি আসে কম। শরীর হালকা লাগে। চিন্তাভাবনাও দ্রুত করতে পারেন তারা। এই ক্ষুদ্র মিলে রাখতে পারেন। ড্রাই ফ্রুটস, ফল, সবজির রস, শসা, টমেটো, গাজর বা বিটের রস হতে পারে। পুদিনা বা ধনেপাতা দেয়া জুস। হোলগ্রেন সালাদ স্যান্ডউইচ, হোলগ্রেন বিস্কুট। এনার্জি লেভেল বাড়াতে প্রসেসড বা রিফাইনড, ফুড এড়িয়ে চলুন। বি কমপ্লেক্স ভিটামিনের অভাবে ক্লান্তি আসে। হোলগ্রেন। সিরিয়াল, পাতাওয়ালা সবজি, কলা, দই, মটরশুঁটি ডালে ইত্যাদি ‘বি’ কমপ্লেক্স ভিটামিন থাকে প্রচুর পরিমাণে। আর রাতে ঘুমাতে হবে ভালোভাবে। অন্তত ৭-৮ ঘণ্টার ঘুম শরীরে ফিটনেস বাড়াবে।

মুখরোচক মিষ্টি বা মিষ্টি জাতীয় খাবার, জুস সবই খাওয়া যাবে জিরোক্যালের মাধ্যমে। জিরোক্যাল শরীরে বাড়তি ক্যালোরি প্রবেশ করাবে না, নিশ্চিন্তে ফিট থাকতে সাহায্য করবে। জীবনযাত্রায় ব্যালান্স ডায়েট মেনে চলুন আর মিষ্টি খান জিরোক্যালের।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।