মানবিকতার গল্প ‘জনমাংক’

বিশ্ব স্রষ্টার অন্যতম শ্রেষ্ঠ সৃষ্টি হিসেবে খ্যাত মানুষ আসলে কে? সৃষ্টিকর্তার নিষেধ সত্ত্বেও বিশ্বময় হানাহানি, শ্রেণী, আর বর্ণ বৈষম্যের যাঁতাকলে পিষ্ট বৃহৎ জনগোষ্ঠী মানুষের সংজ্ঞা নির্ধারণই আজকের বিশ্বের প্রধানতম চ্যালেঞ্জ।অর্থনৈতিক বৈষম্য আর ভেদাভেদ পেশীশক্তি প্রদর্শনের তাচ্ছিল্য প্রতিযোগিতা আর একটি নির্দিষ্ট তান্ত্রিক সমাজ ব্যবস্থায় পুরুষ কি একাই মানুষের ধ্বজাবাহী? নারী কি শুধুই পুরুষের প্রয়োজন মেটানোর হাতিয়ার? এই পুরুষশাসিত সমাজে প্রয়োজন মিটে গেলেই নারীর বেঁচে থাকাটাও কি হয়ে যায় না অপ্রয়োজনীয়?
এমনি প্রশ্ন তুলে ধরা হয়েছে দেশের  নাট্য সংগঠন পদাতিক নাট্য সংসদের অন্যতম প্রযোজনা ‘জনমাংক’ নাটকে। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির স্টুডিও থিয়েটার হলে আগামীকাল (বুধবার) মঞ্চস্থ হবে পদাতিক নাট্য সংসদের ৩২তম প্রযোজনা ‘জনমাংক’ ।  নাটকটি রচনা করেছেন নাসরীন মুস্তাফা। নির্দেশনা দিয়েছেন মীর মেহেবুব আলম নাহিদ। 
 নাটকের বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করছেন মসিউর রহমান, শাখাওয়াত হেসেন শিমুল, ওয়ালিদ, জিনিয়া, কামরুল, জনি, ইকরাম, শুভ, সুমন, নিশাত তামান্না চমক, শরিফ, ইমরান, সানজিদা, তুনাজ্জিনা, স্বরূপ প্রমুখ।
 নাটকের আলোক পরিকল্পনা ফয়েজ জহির, আবহ পরিকল্পনা তপন কুমার সরকার, কোরিওগ্রাফি ফাহমিদা আলম পাখি, আবহ পরিচালনা হামিদুর রহমান পাপ্পু, মঞ্চ, পোশাক ও দ্রব্য আলী আহমেদ মুকুল, পরিচালনা সহযোগী লিমন, ইমরান।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।