মার্ভেল সিনেমায় যোগ দিয়ে রোমাঞ্চিত জুড ল

অভিনেতা জুড ল ‘মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্স(এমসিইউ)’ তে যোগ দিতে পেরে বলেছেন, “ এটা কোন ‘ভাল পার্টি’তে নিমন্ত্রণ পাওয়ার মতই।

ল ‘ক্যাপ্টেন মার্ভেল দিয়ে মার্ভেলের জগতে প্রবেশ করেছেন। তিনি স্টারফোর্সের কমান্ডার এবং ক্যারল ড্যানভার্স তথা ক্যাপ্টেন মার্ভেলের প্রশিক্ষক হিসেবে থাকবেন। চিত্রনাট্য লিখেছেন ব্রাই লার্সন।

“এটা একটা রোমাঞ্চ। কোন পার্টিতে নিমন্ত্রণ পাওয়ার মতই যেখানে আপনি জানেন এই পার্টিতে আগের বছর গুলোতে কারা ছিলেন  এবং আপনি তাদেরকে সম্মান করেন”।

“এবং এটা শুনতে একটা ভাল পার্টি বলেই মনে হবে। তারপর আপনার হঠাৎ মনে পড়বে আপনি  এখনো সেই পার্টিতে যাওয়ার কোন নিমন্ত্রণ পাননি। এরপর একটা নিমন্ত্রণ পাওয়া অবশ্যই ভাল অনুভূতি দেয়। আমি সব সময় এর ভক্ত ছিলাম, সেখানে রোমাঞ্চ অনুভব করি যখন নিজেই এমন কিছুতে কোন পদক্ষেপ নিই বা কাজ করি যেটিকে আমি প্রশংসা করি এবং ভালবাসি”।

অভিনেতা বলেন মার্ভেল স্টুডিও ‘কিছুটা ভিন্ন’ ভাবে কাজ সম্পাদন করে।

“তাই এটা তৈরী করার সময় দেখতে চিত্তাকর্ষক লাগে এবং শিখতেও আনন্দ পাওয়া যায়। এটা খুবই আলাদা ধরনের”।

মার্ভেল স্টুডিওর “ক্যাপ্টেন মার্ভেল’ এই প্রথম কোন নারী চরিত্রকে একক নামভূমিকায় উপস্থাপন করছে।

ল বলেছেন “যদি কেউ এর আগে এই সিরিজের বাকি ছবিগুলো নাও দেখে থাকে তবুও এটিকে দর্শকেরা একক সিনেমা হিসেবেই উপভোগ করতে পারবে”

তিনি আরো যুক্ত করেন “আরো যে দিকটি আকর্ষণীয় হবে তা হল দর্শক এটি দেখবে এবং সেটি একরকম সময়ানুক্রমিকভাবেই দেখা হবে কারণ আমরা এটি প্রথম থেকেই শুরু করছি। তবুও খুব ছোট ছোট যেই মেলবন্ধন গুলো রয়েছে তা সবাইকে অবাক করে দেবে, সেটা আনন্দদায়ক এবং সন্তোষজনকও”।

১৯৯০ সালের প্লটের উপর নির্মিত, ক্যাপ্টেন মার্ভেল’ এ ড্যানভার্সের যাত্রা এগোবে, যেখানে সে পৃথিবীর অন্যতম শক্তিশালী হিরোতে পরিণত হবে। সিনেমাটি ১৯৬৭ সালে প্রকাশিত কমিক বুক সিরিজের উপর ভিত্তি করে নির্মিত হয়েছে । “ক্যাপ্টেন মার্ভেল” আরো রয়েছেন স্যামুয়েল এল জ্যাকসন, বেন মেন্ডেলসন, আনেট বেনিন এবং জুড ল।

সিনেমাটি প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পাবে আগামী ৮ই মার্চ।  

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।