শীতে কোঁকড়া চুলের যত্ন 

কোঁকড়া চুল নিয়ে সব সময়ই কিছুটা ঝামেলা পোহাতে হয়।  কারণ এটি খুব সহজেই ফ্রিজি হয়ে যায় বা জট বেধে যায়। কিছুতেই যেন বশে আসতে চায় না। আর শীতের মৌসুমেতো কোঁকড়া চুল সুন্দর রাখা আরো কঠিন হয়ে পড়ে কারণ এই সময় বাতাসে বেশি ধুলাবালি থাকে এবং আবহাওয়ার কারণে এই চুলের সৌন্দর্য বজায় রাখা বিশেষভাবে কঠিন হয়ে পড়ে। এছাড়াও শীত আসলেই বিয়ে থেকে শুরু করে বিভিন্ন অনুষ্ঠান ও পার্টির ধুম পড়ে। তাই শীতে কোঁকড়া চুলের যত্ন নেয়ার জন্য আজ নিয়ে এলাম ৭টি বিশেষ টিপস। টিপগুলো এই শীতেও আপনার চুলকে রাখবে প্রাণবন্ত ও সুন্দর। চলুন তাহলে শীতে কোঁকড়া চুলের যত্ন নেয়ার টিপ-গুলো দেখে নেই।

১. চুলে যেকোনো ধরনের তাপের ব্যবহার এড়িয়ে চলুন
আপনার চুলে স্ট্রেইটনার বা হেয়ার ড্রায়ার-এর ব্যবহার যতটা সম্ভব কমিয়ে দিন। কারণ এগুলো ব্যবহারের ফলে আপনার চুল আরো রুক্ষ ও প্রাণহীন হয়ে পড়বে। এর কারণ হলো শীতের এই সময়টাতে বাতাস ও খুব শুষ্ক থাকে। তাই চুলে অতিরিক্ত তাপ দেয়ার ফলে চুল আরো রুক্ষ হয়ে পড়বে। আর তাই শুধু শীতকালে আপনার চুলের কার্লিনেস উপভোগ করুন। তাছাড়াও চুলের কার্লি-ভাবটাও কিন্তু এখনকার ফ্যাশন.
২. সবসময় কন্ডিশনার ব্যবহার করুন
কোঁকড়া এবং ওয়েভি চুল খুব দ্রুত তৈলাক্ত হয় ,তাই প্রতিবার শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধোয়ার পরে চুলকে ডিপ কন্ডিশনিং করুন।  এই কন্ডিশনার চুলের আর্দ্রতা লক করতে সাহায্য করবে। ওয়েভি চুলের জন্য, চুল ধুয়ে প্রায় ২ মিনিট কন্ডিশনার ব্যবহার করুন, তারপর ধুয়ে ফেলুন এবং কোঁকড়া চুলের ক্ষেত্রে প্রায় ৫ মিনিটের মত কন্ডিশনার ইউজ করুন, তারপর ধুয়ে নিন। সুন্দর চুল পেতে চাইলে আপনার কোঁকড়া চুলে এই শীতে সপ্তাহে ২ দিন ডিপ কন্ডিশনিং করুন।
৩. হট অয়েল ট্রিটমেন্ট করুন
হট অয়েল কিভাবে সব ধরনের চুলের যত্নেই দারুণভাবে কাজ করে। আর এই শীতে আপনার কোঁকড়া চুলের সৌন্দর্য বজায় রাখতে এই হট অয়েল ট্রিটমেন্ট চুলের ডিপ কন্ডিশনিং-এর অন্তর্ভুক্ত। তাই আপনার চুলে অলিভ বা আমন্ড অয়েল ইউজ করতে পারেন। এমনকি নারকেল তেলের সাথে মিশিয়ে নিয়ে চুলায় বা ওভেনে হালকা গরম করে নিয়ে চুলের গোড়া থেকে আগা পর্যন্ত ভালো করে ম্যাসাজ করতে পারেন। এতে আপনার চুল পাবে পরিপূর্ণ পুষ্টি এবং চুলে আসবে শাইন।
৪. চুল ঢেকে রাখুন
এই শীতের রুক্ষ আবহাওয়া এবং ঠাণ্ডা ও ধুলাবালি থেকে আপনার চুলগুলোকে বাঁচাতে চাইলে বাইরে বের হওয়ার আগে চুলে কোন ক্যাপ পরে নিন অথবা ওড়না বা স্কার্ফ দিয়ে চুল ভালোভাবে ঢেকে নিন। তা নাহলে আপনার চুল ঠান্ডায় ফ্রিজি হয়ে যেতে পারে এবং অতিরিক্ত ধুলাবালিতে চুলের সৌন্দর্য নষ্ট হয়ে যেতে পারে।
৫. সিল্কের পিলো কভার ইউজ করুন
দেহের ও চুলের সৌন্দর্য বজায় রাখতে চাইলে পর্যাপ্ত ঘুমতো অবশ্যই প্রয়োজন। কিন্তু ঘুমানোর সময় খেয়াল রাখতে হবে আপনার কার্লি চুলের সৌন্দর্য যেন ঠিকঠাক বজায় থাকে। তার জন্য শীতে কোঁকড়া চুলের যত্ন নিতে ঘুমানোর সময় সিল্ক বা সাটিনের তৈরি বালিশের কভার ইউজ করুন অথবা আপনার চুলগুলো সাটিনের স্কার্ফ দিয়ে বেধে ঘুমাতে পারেন। এতে আপনার কার্লি হেয়ার থাকবে পরম যত্নে।

৬.আপনার শরীর হাইড্রেটেড রাখুন
শীতকালে আমাদের পানি খুব কম খাওয়া হয় কারণ বাতাসে আদ্রতা থাকার কারণে আমাদের খুব একটা পিপাসা পায় না। কিন্তু শরীরের আর্দ্রতা বজায় রাখার জন্য বেশি বেশি পানি খাওয়া উচিত এই শীতের সময়। এছাড়া ও কোঁকড়া  চুলের কোমলতা বজায় রাখার জন্য বেশি বেশি পানি পানের জুড়ি নেই। তাই শীতে কোঁকড়া চুলের যত্ন নিতে পর্যাপ্ত পরিমাণ পানি পান করুন।
৭. কোঁকড়া চুলের সবচেয়ে বড় শত্রু হল এর জট। এর জট আপনি শুকনা অবস্থায় ছাড়ানোর চেষ্টা করবেন না এতে চুল ভেঙ্গে যেতে পারে । চুলের জট ছাড়ানোর জন্য স্প্রে ব্যবহার  করুন। আর চুল অল্প ভিজা থাকতে আঁচড়ে নিবেন। আর  কোঁকড়া চুলের জন্য বড় দাঁতের চিরুনি ব্যবহার করবেন যাতে চুলে খুব প্রেসার করতে না হয় চুল আঁচড়ানোর জন্য।
৮. যেভাবে চুল শুকাবেন
কোঁকড়া চুল শুকানোর জন্য টাওয়েল খুব মোলায়েমভাবে ব্যবহার করবেন। খুব  ঘষে ঘষে চুল শুকানোর চেষ্টা করলে চুল ভেঙ্গে যেতে পারে। কোঁকড়া চুল ভেঙ্গে যাওয়া দেখতে যেমন খারাপ তেমনি এটা আপনার চুলে আরও বেশী জট তৈরি করবে। তাই আস্তে আস্তে চুল মুছবেন এবং চুল টাওয়েল দিয়ে পেঁচিয়ে রেখে চুল শুকাবেন।

টিপস 
-গরম পানি দিয়ে চুল ধোবেন না। আপনি অল্প কুসুম কুসুম গরম পানি ব্যবহার করতে পারেন যদি শীতকাল হয়।
-কোঁকড়া চুলে চুল রঙ করার পণ্য কম ব্যবহার করেবন। যদি করেন তাহলে অবশ্যই ময়েসচারাইজ ও কন্ডিশনিং আছে এমন পণ্য ব্যবহার করেবন।
-চুল কাটার সময় চুল শুকনা রাখবেন। কারণ ভিজা অবস্থায় কাটলে দেখবেন চুল শুকিয়ে যাবার পর স্টাইল আলাদা হয়ে গেছে।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।