নারকেল তেলে বাড়তি পুষ্টি

চুলের যত্নে নারকেল তেলের কোনো জুড়ি নেই। নিয়মিত নারকেল তেলের ব্যবহার আমাদের চুলকে রাখে সুন্দর, মসৃন আর ঝলমলে। আমরা চাইলে আমাদের চুলের যত্নের এই অত্যন্ত উপকারী উপাদানটিকে আরো বেশি পুষ্টিকর করে নিতে পারি। কিভাবে? চলুন তাহলে জেনে নেয়া যাক। ১। আপনি চাইলে বাজারে কিনতে পাওয়া যায় এমন কোনো নারকেল তেল ব্যবহার করতে পারেন, অথবা বাসায় বসেই বিশুদ্ধ নারকেল তেল বানিয়ে নিতে পারেন। বাইরের তেল কিনে যেমন পুরোপুরি সন্দেহমুক্ত হওয়া যায়না, তাই সময় থাকলে ঘরে বসেই নারকেল তেল বানিয়ে নিলে, সেটা সব থেকে বেশি উপকারে আসবে। ২। সামান্য একটু কালোজিরা নিন, তা হালকা ভেজে নিয়ে পাটায় একটু পানি দিয়ে পিষে পেস্ট করে নিন। ৩। অল্প পরিমান মেথি সারারাত অল্প একটু পানিতে ভিজিয়ে রাখেন। সকালে ওই পানিটুকু সব মেথি টুকু বেঁটে পেস্ট করে নিন। ৪।এলোভেরা গাছের কান্ড কিনতে পাওয়া যায় বাজারে। একটি কিনে নিন, তারপর অল্প একটু পরিমান কেটে ওই কাটা অংশটা একদম মিহি কুচি করে নিন। ৫। পেঁয়াজ আর আমলকি নিন। রস তৈরী করে রাখুন। ৬। এরপর আপনার বোতলের নারকেল তেলের সাথে ওপরের সব গুলা উপাদান একত্রে মেশান। খুব ভালো করে তেলের সাথে মিশিয়ে নিন। মনে রাখতে হবে পেঁয়াজ আর আমলকির রসটাই কেবল পরিমানে একটু বেশি নিতে হবে। এছাড়া বাকি সব কিছুই নিতে হবে আপনার তেলের পরিমান অনুযায়ী। তেল বেশি হলে এই উপাদানগুলো বেশি হবে, আর তেল কম হলে কম। মেশানো হয়ে গেলে, ২৪ ঘন্টা রেখে দিতে হবে। এরপরই তেলটা ব্যবহার উপযোগী হবে। এই তেলে আছে আমলকি আর পেঁয়াজএর রস যা চুল পড়া কমিয়ে নতুন চুল গজাতে সাহায্য করবে। এতে আছে মেথি, যা চুলকে রাখবে ঝরঝরে, আর কালোজিরা আপনার চুলকে দিবে পুষ্টি আর সি সাথে চুল হবে দীঘল কালো। এই তেল যদি সপ্তাহে ২/৩ বার আপনি ব্যবহার করেন তবে আপনার চুল আগের তুলনায় অনেক গুন্ ভালো হবে। তফাৎটা আপনি নিজেই বুঝতে পারবেন। তো? আর দেরি কেন? আজই তাহলে বানিয়ে ফেলুন এই তেল, করে ফেলুন আপনার নারকেল তেলকে আরো বেশি পুষ্টিকর।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।