ঘরে বসেই পেডিকিউর মেনিকিউর

দেখা যায় যে রূপচর্চর অধিকাংশ সময় মুখের যত্নেই চলে যায়।  কিন্তু তাই বলে কি হাত পায়ের যত্ন বাকি থেকে যাবে? মোটেই না!! পার্লারে গিয়ে হাত পায়ের যত্ন দেয়ার সময় অনেকেরই থাকে না, তাই আজ আমরা জন্য কিভাবে ঘরে বসে মেনিকিউর পেডিকিউর করা যায়।   

প্রথমেই আপনার হাত পা ভালো মতো খালি পানি দিয়ে পরিষ্কার করে নিন, কারণ ময়লা হাত পায়ে মেনিকিউর পেডিকিউর করা যায় না।  আলাদা আলাদা করে আপনি হাত পা পরিষ্কার করতে পারেন, আবার চাইলে এক বারেই হাত পা ঘরে বসে মেনিকিউর পেডিকিউর করতে পারেন।  প্রথমেই হাত পায়ের নখে নেইলপলিশ থাকলে তা পরিষ্কার করে ফেলুন। অবশ্যই ভালো মানের নেইলপলিশ রিমুভার ব্যবহার করবেন। একটি বড় পাত্র বা ছড়ানো বড় বাটিতে হালকা গরম পানি দিন। সাথে একটু লবন মিশিয়ে নিতে পারেন। এবার এই গরম পানিতে আপনার হাত পা ভিজিয়ে দিন। ১০ মিনিট অপেক্ষা করুন। এই দশ মিনিটে পায়ে জমা হওয়া ফাঙ্গাস, ব্যাকটেরিয়া দূর হবে। নখ, নখের চারপাশ কোমল হবে। নেইলকাটার দিয়ে সুন্দর করে আপনার পায়ের নখগুলো কেটে নিন। চেষ্টা করবেন সব নখ যেন একদিক থেকে কাটা হয়। বাজারে নখের ত্বক পরিষ্কারের বিশেষ কাঠি পাওয়া যায় যা অনেক সময় নেইলকাটারের সাথেও থাকে। এই কাঠি দিয়ে নখের ত্বক ঘষে নিন। এতে নখের উপর জমা হওয়া বাড়তি ময়লা আবরন দূর হয়ে নখে গোলাপীভাব আসবে। এরপর পানিতে একটু শ্যাম্পু দিয়ে নিন, একটি ব্যাড ব্রাশ বা বাজারে কিনতে পাওয়া যায় মেনিকিউর পেডিকিউর ব্রাশ, সেটা দিয়ে ভালো মতো হাত পা ঘষুন।  পাঁচ/ দশ মিনিট ধরে ঘষা শেষ হলে পা তুলে ফেলুন ওই ময়লা পানি থেকে।  এবার ভালো কোনো স্ক্রাবার বা বডি সল্ট দিয়ে হাত পা খুব ভালো মতো স্ক্রাবিং করুন।  তারপর আবার কুসুম গরম পানিতে হাত পা ধুয়ে ফেলুন।  এরপর মুলতানি মাটি, চন্দন, লেবুর রস, চালের গুঁড়া, পাঁকা পেঁপে মিশিয়ে একটা প্যাক বানান, ওটা হাত পায়ে মেখে ২০ মিনিট অপেক্ষা করুন, তারপর ধুয়ে ফেলুন।   

এই পর্যায়ে কোনো বেবি সোপ দিয়ে হাত পা ধুয়ে নিন।  সব শেষে ময়েশ্চেরাইজার দিন ভালো মতো।  তার ১৫ মিনিট পর দিন পছন্দ মতো নেইল পলিশ।  ব্যাস!! হয়ে গেলো!!  

  

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।