অঞ্জন’স সব সময়ই তারুণ্যের পছন্দকে প্রাধান্য দিয়ে থাকে: বকুল বেগম

তরুণ প্রজন্মের কাছে জনপ্রিয় একটি ফ্যাশন ব্র্যান্ডের নাম অঞ্জন’স। তারা বিভিন্ন উৎসব ও ঋতুকে সামনে রেখে নতুন নতুন ডিজাইনের পোশাক বাজারে আনে। সারাদেশেই ছড়িয়ে রয়েছে তাদের আউটলেট। বকুল বেগম ৬ বছর ধরে সেখানে ফ্যাশন ডিজাইনার হিসেবে কাজ করছেন। আনন্দধারার মুখোমুখি হয়ে তিনি কথা বলেছেন শীতের ফ্যাশন ও নিজেদের ব্র্যান্ড নিয়ে।

আনন্দধারা : অঞ্জন’স কেন অন্যদের থেকে আলাদা?

বকুল বেগম : ফ্যাশনের ক্ষেত্রে শীত একটি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। অঞ্জন’স সব সময় উৎসব ও ঋতুভিত্তিক কাজ করে। অঞ্জন’স সব সময়ই তারুণ্যের পছন্দকে প্রাধান্য দিয়ে থাকে।

আনন্দধারা : এবারের শীতে আপনারা কী কী আনলেন?

বকুল বেগম : একটু ট্র্যাডিশনাল পোশাকে থাকতে যারা পছন্দ করেন, তারা আমাদের শালের অপেক্ষায় থাকেন। হালকা শীতের কথা ভেবে বিভিন্ন কাপড়ের সঙ্গে মিল রেখে আমরা শাল এনেছি। এছাড়া লং, শর্ট ও মিডিয়াম জ্যাকেট তৈরি করেছি আমরা। খাদি কাপড়ে বিভিন্ন স্টাইলিস্ট লেডিস টপস করা হয়েছে।

আনন্দধারা : শীতের পোশাকের জন্য আপনারা কেমন কাপড় ব্যবহার করেছেন?

বকুল বেগম : আমরা শীতের সময় শাল, হ্যান্ড লুমিং শাল, পঞ্চ, কটি, লেডিস ফতুয়া তৈরি করে থাকি। শীতকে মাথায় রেখে ফ্যাব্রিকসগুলো লিনেন, কটন, খাদি দিয়ে কাজ করে থাকি।

আনন্দধারা : ডিজাইনের ক্ষেত্রে কোন বিষয়কে প্রাধান্য দিয়েছেন?

বকুল বেগম : আমরা এবার এমব্রয়ডারি, ব্লক, স্ক্রিনের ওপর জোর দিয়েছি। শালে রয়েছে বিভিন্ন ধরনের ডিজাইন, আশা করি সবার ভালো লাগবে। এছাড়া জ্যাকেটের ক্ষেত্রে ওয়েস্টার্ন লুক আনা হয়েছে। এছাড়া শীতের ফ্যাশনে অনেক লেয়ার করা যায়। অনেক ফ্যাশনেবলভাবে নিজেকে সবার মাঝে উপস্থাপন করা যায়। অনেকে ট্র্যাডিশনাল বা ওয়েস্টার্ন বা ফিউশন পোশাক পরতে ভালোবাসেন। সেক্ষেত্রে আমরা এমন কিছু জ্যাকেট তৈরি করেছি, যা মেয়েরা শাড়ির ওপর পরতে পারবেন। এগুলো খাদি কাপড়ের তৈরি।

আনন্দধারা : শীতের ফ্যাশনে কোন রঙকে গুরুত্ব দেয়া উচিত?

বকুল বেগম : আমরা তো ডার্ক রঙকে বেশি গুরুত্ব দিয়েছি। তবে শীতের সময় একটু কালারফুল পোশাকই সবার পছন্দ। তাই এবার পোশাকগুলোয় আমরা উজ্জ্বল রঙ ব্যবহার করেছি। চেষ্টা করেছি পঞ্চগুলোও অনেক কালারফুলভাবে উপস্থাপন করতে। এছাড়া বয়স্কদের কথা চিন্তা করে আমরা আলাদাভাবে কাজ করি। বিভিন্ন বয়সীদের জন্য তৈরি পোশাকগুলোর রঙ ও ডিজাইনে রয়েছে ভিন্নতা।

আনন্দধারা : ভালো ফ্যাশন ডিজাইনার হতে চান তাদের জন্য আপনার উপদেশ কী হবে?

বকুল বেগম : কাপড়ের ধরন, ডিজাইন ও মান সম্পর্কে ভালো ধারণা নিতে হবে। প্রথমেই বুটিকশপ না খুলে প্রস্তুতিমূলকভাবে বেশকিছু প্রদর্শনীর আয়োজন করা যেতে পারে। এতে করে তারা ক্রেতাদের চাহিদা বুঝতে পারবেন। এভাবেই ধীরে ধীরে এজন সফল ফ্যাশন ডিজাইনারে পরিণত হওয়া যেতে পারে।

আনন্দধারা : আমাদের সময় দেয়ার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ।

বকুল বেগম : আপনাকেও ধন্যবাদ।

Anonymous এর ছবি
CAPTCHA
এই প্রশ্নটি আপনি একজন মানব ভিজিটর কিনা তা যাচাই করার জন্য এবং স্বয়ংক্রিয় স্প্যাম জমাগুলি প্রতিরোধ করার জন্য।

Home popup